মঙ্গলবার, ২০ এপ্রিল ২০২১, ০৪:১৫ পূর্বাহ্ন৭ই বৈশাখ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

সংবাদ শিরোনাম :
ভিডিও বার্তায় গ্রেফতার বন্ধের দাবি জানালেন আল্লামা জুনায়েদ বাবুনগরী সাংবাদিক আল হাছিব তাপাদারকে দুর্বৃত্তের হুমকি, সাংবাদিকদের নিন্দা, থানায় জিডি জকিগঞ্জে স্কুলছাত্রী ধর্ষণের ঘটনায় মূল অভিযুক্তসহ ৬ জন কারাগারে ১৪ এপ্রিল থেকে ‘সর্বাত্মক লকডাউন’ ঘোষণার চিন্তা করছে সরকার পবিত্র রামাযান ও রামাযানের প্রস্তুতি জকিগঞ্জে ঘর পুড়ে ছাই, খোলা আকাশের নিচে এক পরিবার! তিনদিন পিছিয়েছে হাইয়াতুল উলিয়ার পরীক্ষা সিলেটে সতর্ক অবস্থানে সব বাহিনী, প্রস্তুত এসএমপির ৬ ম্যাজিস্ট্রেট জামেয়াতুল খাইরের ছাত্রাবাস ও শিক্ষাভবনের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন অনুষ্ঠান সম্পন্ন জকিগঞ্জে কথিত ‘গলাকাটা’ নাটক সাজিয়ে মিথ্যা মামলায় হয়রানির অভিযোগ
জকিগঞ্জে ঘর পুড়ে ছাই, খোলা আকাশের নিচে এক পরিবার!

জকিগঞ্জে ঘর পুড়ে ছাই, খোলা আকাশের নিচে এক পরিবার!

নিজস্ব প্রতিনিধি:::
সিলেটের জকিগঞ্জ উপজেলার ৮নং কসকনকপুর ইউনিয়নের নওয়াগ্রামে ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ডে একটি বসতঘর সম্পূর্ণ পুড়ে ছাই হয়ে গেছে। ফলে অসহায় এ পরিবার মাথা গোঁজার আশ্রয় হারিয়ে খোলা আকাশের নিচে রয়েছে। অগ্নিকাণ্ডে প্রায় ১২/১৩ লাখ টাকার ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে বলে প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে।
মঙ্গলবার (৩০ মার্চ) সকাল অনুমানিক সাড়ে আট ঘটিকার দিকে এ অগ্নিকাণ্ডের ঘটনাটি ঘটে। অগ্নিকাণ্ডে বসতঘর সহ ঘরে থাকা নগদ লক্ষাধিক টাকা, প্রয়োজনীয় জিনিসপত্র, ফার্ণিচার সামগ্রী, ব‍্যবহৃত লেপ, তোশক. বালিশ, কাঁপড় চোপড়, দলীল দস্তাবেজ, মোবাইল ফোন, গৃহপালিত পশু পাখি সহ প্রায় ৮ লক্ষাধিক টাকার জিনিসপত্র পুড়ে ভস্মীভূত হয়ে যায়।
এলাকাবাসী ও ক্ষতিগ্রস্তদের ভাষ্য, মঙ্গলবার সকাল সাড়ে আট ঘটিকার দিকে হেলাল আহমদের বসতঘরের এক সাথে আগুন লেগে যায়। স্থানীয়রা ধারণা করছেন, কোন স্বার্থ কিংবা শত্রুতার জের ধরে কেউ পেট্রোল ঢেলে আগুন লাগিয়ে দিতে পারে। আগুন লাগারপর স্থানীয়রা আগুন নেভানোর চেষ্টা করার পাশাপাশি জকিগঞ্জ ফায়ার সার্ভিসকে খবর দেয়। তবে জকিগঞ্জ উপজেলা থেকে অনেকদূর হওয়ার কারনে ফায়ারসার্ভিস আসতে আসতে আগুন নীভে সব কিছু পুড়ে যায়।



অগ্নিকাণ্ডে ক্ষতিগ্রস্ত হেলাল আহমদ বলেন, দীর্ঘদিন আমি প্রবাসে রুজিরুজগার করে একটি ঘর নির্মাণ করেছি কিন্তু সর্বনাশা আগুন সব কেড়ে নিয়েছে। এখন আমি ও আমার পরিবার কোথায় যাব? নতুন করে ঘর তৈরি করার মতো কোনো সম্বল আমার অবশিষ্ট নেই।

তিনি আরো জানান, সকালে পল্লিবিদ্যুত এর লাইনে কারেন্ট ছিলনা, আমার ঘরের সিলিন্ডারও ব্লাস্ট করে নাই। আমি তখন আমার ছোট একটা নাতিকে নিয়ে উঠানে ছিলাম। আমার স্ত্রী হঠাৎ করে ঘরের উপরইভাগে আগুন দেখে আমাকে বলেন। আমি আশেপাশের সবাইকে ডাকাডাকি শুরু করি। সবাই এক যুগে আগুন নেভানোর চেষ্ঠা করলেও বিন্দু পরিমাণ কোন কিছু বাকী রয় নাই। সব কিছু পুড়ে ছাই হয়েগেছে। এমনকি পাকাঘরের দেয়ালগুলোও ব্যবহারের অনুপুযুক্ত হয়েগেছে।
দিনের বেলা আকস্মিকভাবে আগুন লেগে যাওয়ার পিছনে কারও হাত আছে বলে ধারণা করছেন তিনি।

৮নং কসকনকপুর ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান আব্দুর রাজ্জাক রিয়াজ জানান, আমি অগ্নিকাণ্ডের খবর পাওয়ার সাথে সাথে ফায়ার সার্ভিসকে বিষয়টি অবহিত করেছি। অগ্নিকাণ্ডে পরিবারটি নিঃস্ব হয়ে গেছে। তাদেরকে ইউনিয়ন পরিষদের মাধ্যমে উপজেলা নির্বাহী অফিসার বরাবর সহযোগিতার জন‍্য আবেদন করতে বলেছি।

শেয়ার করুন
  • 9
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  





themesba-zoom1715152249
©সর্বসত্ত্ব সংরক্ষিত।
Developed By: Nagorik IT